১৬ সেপ্টেম্বর রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন

58

এম এ রশিদ শিশির/রংপুর বার্তা; গণভবন থেকে সরাসরি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।একই দিন গঙ্গাচড়ার গার্ডার সেতুও উদ্বোধন করবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর সহকারি একান্ত সচিব-১ কাজী নিশাত রসুল এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, গত ২০১০ সালের ২৫ জানুয়ারী মন্ত্রী পরিষদের সভায় রংপুরকে বিভাগ করার বিষয়টি অনুমোদন দেয়া হয়।রংপুর বিভাগ বাস্তবায়নের পর এ অঞ্চলের গুরুত্ব অনুধাবন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ আইন এর খসড়া নীতিগত ভাবে অনুমোদন দেন ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে।

যার ফলে রংপুর সদর,মিঠাপুকুর,কাউনিয়া,পীরগাছা, বদরগঞ্জ এর কিছু অংশ নিয়ে গঠিত রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরপিএমপি)।যার আয়তন ৫ শত ১৭ দশমিক ৩ বর্গ কিলোমিটার।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের থানা যেসব এলাকা নিয়ে গঠিত:

কোতয়ালি:নিশবেতগঞ্জ, ধাপ, কেল্লা­বন্দ (আংশিক), ভগি (আংশিক), চিকলীভাটা, রাঁধাবল­ভ, কাচারী বাজার, ইঞ্জিনিয়ার পাড়া, সেনপাড়া, গুপ্তপাড়া, শালবন, জুম্মাপাড়া, কামালকাছনা, বাহারকাছনা, নুরপুর, তেঁতুলতলা, চামড়াপট্টি, আলমনগর, বাবুপাড়া (আংশিক), বাবুখাঁ, গনেশপুর দোলাপাড়া, কলেজপাড়া (আংশিক), সাতগাড়া, পীরজাবাদ, রামপুরা, ভগিবালাপাড়া, মুন্সিপাড়া,রংপুর সদরের চন্দনপাট ইউনিয়ন, সদ্য পুষ্করণী ইউনিয়ন ও বদরগঞ্জের গোপালপুর ইউনিয়ন,কেরানীপাড়া, গুড়াতিপাড়া, মুলাটোল, ইসলামপুর, নীলকন্ঠ, পান্ডারদিঘী (আংশিক), রবার্টসন্সগঞ্জ, দেওডোবা (আংশিক), বিনোদপুর (আংশিক)।

মাহিগঞ্জ থানা: মাহিগঞ্জ, ধুমখাটিয়া, ডিমলা, নাছনিয়া, দখিগঞ্জ, বীরভদ্র বালাটারী, দেওয়ানটুলি, দেওয়ানটুলি ফতেপুর, সাতমাথা, আরাজি মন খামার, মহিন্দ্রা, তালুকবকশি, রাজুখাঁ, আজিজুল্লাহ, হোসেন নগর, তালুক রঘু, মেকুরা, পীরগাছার কল্যাণী ইউনিয়ন ও পারুল ইউনিয়ন।

তাজহাট থানা:কেডিসি রোড, খেরবাড়ি, বাবুপাড়া (আংশিক), তাজহাট, পাটবাড়ি, আশরতপুর, পার্কেও মোড়, লালবাগ, বড় রংপুর, তালুক ধর্মদাস, তালুক তামপাট, নগরমীরগঞ্জ, খোর্দ্দ তামপাট, খোর্দ্দ রংপুর, কলেজপাড়া, দর্শনা, ঘাঘটপাড়া, আক্কেলপুর, বিনোদপুর (আংশিক), মানজাই, কিসামত বিষু, নাজিরদিঘর, পানবাড়ি, আরাজি দাস, শেখপাড়া, মিঠাপুকুরের পায়রাবন্দ ইউনিয়ন ও রানীপুকুর ইউনিয়ন।

পরশুরাম থানা: কুবারু, চব্বিশ হাজারী, পান্ডারদিঘী (আংশিক), হারাটি, খটখটিয়া, কায়দাহারা, আরাজি পশুয়ারী, আমাশু কুকরুল, কুকরুল, বালাকুমার, বিনোদ জলছত্র, পরশুরাম, আটিয়াটারী, নওহাটি কাছনা, বাহার কাছনা ও চওরারহাট।

হারাগাছ থানা: বেনুঘাট, জমচড়া, গুলালবুদাই, বুদাই, কার্তিক, চানকুঠি, চব্বিশ হাজারী (আংশিক), আরাজি গুলালবুদাই, তপোধন, মহব্বত খাঁ, চিলমন, বধুকমলা, সাহেবগঞ্জ, কাছনা, বীরচরণ, মহাদেব, রামগোবিন্দ (আংশিক), কাউনিয়ার সারাই ইউনিয়ন ও হারাগাছ পৌরসভা।

হাজীরহাট থানা: বারঘরিয়া, হরিরাম পিরোজ, মনোহর, অভিরাম, শেখটারী, গোয়ালু, নিয়ামত (আংশিক), পান্ডারদিঘী (আংশিক), উত্তম রনচন্ডি (পাগলাপীর), চক ইসবপুর, নজিরের হাট, কামদেবপুর, পঞ্চিম গিলাবাড়ি, পূর্ব গিলাবাড়ি, জগদিশপুর, বকতিয়ারপুর, বিন্নাটারী, কেরানীরহাট, ভবানীপুর, রাধাকৃষ্ণ পুর, গোপিনাথপুর (আংশিক), রংপুর সদরের হরিদেবপুর ইউনিয়ন, মমিনপুর ইউনিয়ন ও গঙ্গাচড়ার খলেয়া ইউনয়ন।
পরশুরাম: কুবারু, চব্বিশ হাজারী, পান্ডারদিঘী (আংশিক), হারাটি, খটখটিয়া, কায়দাহারা, আরাজি পশুয়ারী, আমাশু কুকরুল, কুকরুল, বালাকুমার, বিনোদ জলছত্র, পরশুরাম, আটিয়াটারী,বাহার কাছনা, চওরারহাট, নওহাটি কাছনা।

প্রথমে ১১৫০ জনবল নিয়ে কাজ শুরু করবে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ। যার মধ্যে একজন পুলিশ কমিশনার, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার একজন, উপ-পুলিশ কমিশনার ২ জন, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ৬ জন, সহকারী পুলিশ কমিশনার ১২ জন,ইন্সপেক্টর ২০ জন, সাব ইন্সপেক্টর ১২০ জন, সার্জেন ১০ জন, সহকারি উপপরিদর্শক (এএসআই) ১৫০ জন, এটিএসআই ১০ জন, নায়েক ৭০ জন, কনস্টেবল ৭৫০ ও অন্যান্য (নন পুলিশ) ৩৩ জন রয়েছেন।