বেরোবির যুগান্তর প্রতিনিধির ওপর সন্ত্রাসীরা হামলা

24

রংপুর বার্তা.কম:এক সহপাঠীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে যুগান্তরের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি রাব্বি হাসান সবুজের ওপর ছাত্রলীগ নামধারী সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়েছে।

শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিজয় সড়কে এ ঘটনা ঘটে।তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে রোববার ক্যাম্পাসে বেরোবি সাংবাদিক সমিতির প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের মাঝে চরম রিরাপত্তাহীনতা বিরাজ করছে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের সভাপতি রবিউল ইসলাম তুষার ও সাধারণ সম্পাদক মানিক রাইহান বাপ্পীর যৌথ বিবৃতিতে প্রেসক্লাবে কর্মরত সাংবাদিকদের পক্ষে এ প্রতিবাদ ও নিন্দা জ্ঞাপন করে হামলার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

এদিকে বেরোবি সাংবাদিক সমিতির প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন না করার জন্য ছাত্রলীগের ক্যাডার বাহিনী হুমকি দিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির নেতারা তা নিশ্চিত করেছেন।

বেরোবি সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বের আহমেদ জানান, তারা নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। তারপরও ঘোষিত কর্মসূচি পালন করা হবে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও হামলার শিকার রাব্বি জানায়, তার সঙ্গে এক সহপাঠী বিজয় সড়কে অবস্থান করছিল। এ সময় ছাত্রলীগের নামধারী কয়েকজন ছাত্র সেখানে ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করে। ক্রমাগত আশালীন মন্তব্য করতে থাকে। এ সময় ওই ছাত্রী ও রাব্বি হাসান সবুজ এর প্রতিবাদ করলে উত্ত্যক্তকারী সন্ত্রাসীরা আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে। এ সময় পরিস্থিতি মারমুখী হয়ে ওঠলে সেখানে বিশ্ববিদ্যালয় ফাঁড়ির কর্তব্যরত পুলিশের ইনচার্জ মহিবুল ইসলাম সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন।

একপর্যায়ে তাদের পুলিশ ফাঁড়ির দিকে নিয়ে আসার চেষ্টা করলে ছাত্রলীগের নামধারী ১০-১৫ জনের একটি সন্ত্রাসীদল সাংবাদিক রাব্বি হাসান সবুজের ওপর হামলা চালায়। একই সঙ্গে ওই ছাত্রীকে নিয়ে টানাহেঁচড়া করতে থাকে।

হামলায় রাব্বি গুরুতর আহত হয়ে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত বিভিন্ন সংবাদকর্মী ও সহপাঠীরা তাকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে(রমেক) নিয়ে যান। শনিবার তার এক্স-রে করা হয়েছে। এতে দেখা যায় মারধরের কারণে তার নাকের হার ভেঙে গেছে। শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শ্যামল রায় জানান, নাকের হার ভেঙে যাওয়ায় তাকে দীর্ঘ সময় বিশ্রামে থাকতে হবে। শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন আছে। তার সুষ্ঠু চিকিৎসা চলছে। নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখে হাসপাতালে তাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

হাসপাতাল পরিচালক ডা. অজয় রায় জানিয়েছেন বিশেষ নজরদারিতে তার চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি তুষার কিবরিয়া বলেন, ঘটনার সঙ্গে ছাত্রলীগ জড়িত নয়। কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তারা তা জানেন না। সাংবাদিক সমিতির সমাবেশ বন্ধ করার হুমকির কথা তিনি অস্বীকার করে বলেন, কেউ যদি হুমকি দিয়ে থাকে তাদের সঙ্গে ছাত্রলীগের কোনো সম্পর্ক নেই।

ছাত্রলীগের রংপুর জেলা সভাপতি মেহেদি হাসান রণি জানিয়েছেন, তিনি শুনেছেন ছাত্রলীগের নামে কেউ কেউ সাংবাদিকদের হুমকি দিয়েছে। তিনি এ বিষয়ে বেরোবি ছাত্রলীগের নেতাদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন কেউ যেন কোনো ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে ছাত্রলীগের ঘাড়ে চাপিয়ে দিতে না পারে। এ জন্য তিনি যে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা বন্ধ করতে নেতাদের প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে কাজ করতে বলেছেন।

পুলিশ কর্মকর্তা মহিবুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি তিনি মিমাংসা করা চেষ্টা করেন। কিন্তু তার আগেই ওই হামলার ঘটনা ঘটে। আহত সাংবাদিক রাব্বিকে তার সহকর্মীরা হাসপাতালে নিয়ে গেছে।
সুত্র:যুগান্তর