বিমান ছিনতাইকারী মাহাদী নিহত

20

রংপুর বার্তা.কম;ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে দুবাইগামী বিমানটির (বোয়িং-৭৩৭) অস্ত্রধারী ছিনতাইকারী মাহাদী (২৫) না্মক এক যুবক সেনাবাহিনী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে গোলাগুলিতে নিহত হয়েছে।

রোববার রাত ৯টার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে সেনাবাহিনীর চট্টগ্রাম অঞ্চলের জিওসি মেজর জেনারেল এস এম মতিউর রহমানএ তথ্য নিশ্চিত করেন।

লে. কর্নেল ইমরুলের নেতৃত্বে ৮ মিনিটের অভিযানকালে তিনি নিহত হন। তবে অভিযানের আগেই যাত্রী ও ক্রুরা নিরাপদে বিমান থেকে বের হয়ে আসেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, রোববার বিকেল ৫টা ৩৩ মিনিটে বিমান বাহিনী প্রথম জানতে পারে ছিনতাইয়ের কথা। ককপিট থেকে পাইলট বিষয়টি জানায় এটিসিকে। পরে বিমানটি ৫টা ৪১ মিনিটে জরুরি অবতরণ করে। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা প্রাথমিকভাবে ঘটনা সামাল দেন।

পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে ১ প্যারা কমান্ডো ব্যাটালিয়ন আসে বিএনএস ইশা খাঁ থেকে। তারা সেখানে আগে থেকেই অবস্থান করছিলেন।

তারা দ্রুততম সময়ে বিমানবন্দরে এসে সফল অভিযান চালিয়ে ছিনতাইয়ের অবসান ঘটান।তবে এক প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ছিনতাইকারীকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক করা হয়েছে। বিমানটিতে ১০৭ জন যাত্রী ছিলেন। তারা সবাই অক্ষত আছেন।

এর আগে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে দুবাইগামী বাংলাদেশ বিমানের একটি উড়োজাহাজ ঘিরে রাখে পুলিশ।

উড়োজাহাজটি ছিনতাইয়ের খবর পাওয়ার পরই সেটি ঘিরে রেখেছে পুলিশ ও র‌্যাব। উড়োজাহাজের ভেতরে একজন সন্দেহভাজন অস্ত্রধারী পাইলটকে জিম্মি করে রাখে। ভেতরে দুইজন ক্রু ছিল। সব যাত্রীকে নামিয়ে নিরাপদে নেয়া হয়েছে।

বিমানটিতে চট্টগ্রাম-৯ আসনের সংসদ সদস্য জাসদ নেতা মঈন উদ্দীন খান বাদল ছিলেন। তিনি বিমান থেকে বের হয়ে সময় টিভিকে টেলিফোনে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, অস্ত্রধারী ছিনতাইকারী কেবিন ক্রকে তেড়ে এসে বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চাই।