লন্ডনে ঈদের জামাত পড়বেন টাইগাররা

17

ডেস্ক নিউজ:বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার কথা ভেবেই ঈদের নামাজ কোথায় পড়বেন তারা তা গতকালে জানায়নি আইসিসি।

লন্ডনে ঈদের জামাত বেশকয়েকটি। ইস্ট লন্ডন মসজিদে ও জামাতে প্রায় ৩০ হাজার মুসলিমের সম্মিলন হয়। আরেকটি বড় ঈদের জামাত হয় মাইল এন্ডের একটি মাঠে। এর কোন একটিতেই, নাকি অন্য কোথাও ঈদের নামাজ আদায় করবে বাংলাদেশ দল- সেটি ঈদের দিন সকালের আগে জানতে পারবেন না মাশরাফিরা।

পরিবর্তিত বিশ্বে এখন উপাসনালয়ও সন্ত্রাসী আক্রমণের আওতামুক্ত নয়! ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে বর্বরোচিত হামলার প্রত্যড়্গদর্শী বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। পাল্টা আঘাত হয়েছে শ্রীলঙ্কার চার্চে। লন্ডনে ‘হেইট ক্রাইম’ তো অভাবিত কিছু নয়। ২০১৭ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি চলাকালে টাওয়ার হিল স্টেশনে হামলা হয়েছিল। তাই এবার বাড়তি সতর্কতা নিয়েছে আইসিসি।

ক্রিকেটের বৈশ্বিক আয়োজকদের পক্ষ থেকে নাকি ঈদের জামাতে না যাওয়ারই পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল বাংলাদেশ দলকে। তবে রাজি হয়নি বাংলাদেশ দল। ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সেটাই জানিয়েছেন আজ, ‘নিরাপত্তা এখন বড় একটা ইস্যু। আমাদের ছেলেরা রোজা রেখেও ক্রিকেট খেলে। তাই ঈদের নামাজ আমরা জামাতেই আদায় করব। আইসিসিও রাজি হয়েছে। তবে কোথায় পড়ব, সেটি জানায়নি।’

আজ সকালেও জামাতের স্থান গোপন রাখার পেছনের কারণও নিরাপত্তা। এদিকে ঈদের ভোজ এখনো নির্ধারিত হয়নি। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয় আর চাঁদ রাত আজ বাংলাদেশ দল উদযাপন করবে সাড়ম্বরে। স্থানীয় একটি হোটেলের সে ডিনারে উপস্থিত থাকবেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানসহ বেশ কয়েকজন বোর্ড পরিচালক।
সূত্র:কালের কন্ঠ