অমর একুশে বইমেলা ২০২০

36

রংপুর বার্তা.কম:অমর একুশে বইমেলা ২০২০ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এ বইমেলা বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে সুন্দর হবে।আগামী ২ ফেব্রুয়ারি (রোববার) বিকেল ৩টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মেলার উদ্বোধন করবেন।

ছুটির দিন ব্যতীত প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকবে মেলা। ছুটির দিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলবে। তবে ২১ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত মেলা খোলা থাকবে।

এবারের মেলায় ৫৬০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে। ৮৭৩টি ইউনিট, ৩৪টি প্যাভিলিয়ন ও ১৫৮টি লিটলম্যাগ স্টল থাকবে।

৩ ফ্রেব্রুয়ারি থেকে ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিকেল ৪টায় মেলার মূল মঞ্চে সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।

বৃহস্পতিবার (৩০ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলা একাডেমির পরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী বলেন, এবারের বইমেলা হবে বাংলাদেশিদের জন্য সবচেয়ে বড় আয়োজন। বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গীকৃত বইমেলাটি আমরা অত্যন্ত আকর্ষণীয়ভাবে উপস্থাপিত করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। মেলায় আপনারা এর বাস্তবায়ন দেখতে পাবেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ওপর লিখিত ২৬টি বই থেকে প্রতিদিন একটি করে আলোচনা সভার আয়োজন থাকবে। বঙ্গবন্ধু পাঠাগার নামে একটা পাঠাগার থাকবে।

এবার বাংলা একাডেমি থেকে নতুন ও পুনর্মুদ্রিত ১০৪টি বই প্রকাশিত হবে। সোহরাওয়ার্দীতে শিখর, সংগ্রাম, মুক্তি ও অর্জন নামে ৪টি কর্ণার থাকবে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পূর্ব ও পশ্চিম প্রান্তে দুটি ফুডকোর্ট থাকবে। নামাজ ঘর, পুলিশ ব্রেস্টফিডিং কর্ণার, হুইলচেয়ার ইত্যাদির ব্যবস্থা থাকবে।

বিকাশের পক্ষ থেকে ক্রেতাদের জন্য থাকছে ১০% ডিসকাউন্ট এবং সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য একটি প্যাভিলিয়ন থাকবে, যেখানে ৫,০০০ বই সংগ্রহ করা হবে।

এ ছাড়া শিশুদের জন্য কুইজ, চিত্রাংকন, উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা ইত্যাদি আয়োজন থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী, বাংলা একাডেমির সচিব আনোয়ার হোসেন, সদস্য সচিব জালাল আহমেদ, সদস্য সচিব বিকাশের সিও মির নগদ আলী, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান ক্রসওয়ার্ক কমিউনিকেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ মারুফ প্রমুখ।