দেশের সফলতম অধিনায়ক মাশরাফি-মাহমুদউল্লাহ

6

রংপুর বার্তা.কম:দেশের ইতিহাসের সফলতম অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার নেতৃত্বের অধ্যায়ের সমাপ্তি ঘটেছে শুক্রবার, বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে।

রোববার টি-টোয়েন্টি ম্যাচ পূর্ববর্তী আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল্লাহ জানালেন অধিনায়ক মাশরাফির বিশেষত্ব, কীভাবে পুরো দলকে নির্ভার রাখার কাজটি করতেন দেশের সফলতম অধিনায়ক।

নতুন ওয়ানডে অধিনায়ক হবেন কে?- তা নিয়ে চলছে তুমুল গুঞ্জন, শোনা যাচ্ছে অনেকের কথা। সে তালিকায় সবার ওপরেই রয়েছে বর্তমান টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নাম।

মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘আসলে মাশরাফি ভাই হলেন একজন সহজাত দক্ষতা সম্পন্ন অধিনায়ক। তার নিজেরই একটা বিশেষ ধরন ছিল। আমরা কখনও চাপে থাকলে, অফফর্ম নিয়ে বেশি চিন্তা করলে, তিনি আলাদা করে নিয়ে কথা বলতেন, বোঝাতেন। কীভাবে সেই সমস্যা দূর করা যায়? অযথা চিন্তাভাবনা না করার পরামর্শ দিয়ে কিভাবে এগুলে কাজ হবে তাই করার কথা বলতেন। আর বলতেন সমস্যা নিয়ে বেশি না ভেবে সমাধানের কথা ভাবতে।’

মাশরাফি অধ্যায় শেষ। এখন নতুন অধীনায়কের অধীনের ওয়ানডে খেলতে হবে বাংলাদেশকে। টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাফ জানিয়ে দিলেন, মাশরাফির মতো করে দল চালানো যে কারও জন্যই চ্যালেঞ্জিং হবে।

‘মাশরাফি ভাই দারুণভাবে দল পরিচালনা করেছেন। বেশ দক্ষতার সঙ্গে দলকে এগিয়ে নিয়েছেন। নতুন কারও জন্য তার মতো করে দল পরিচালনা করা এবং সামনে এগিয়ে নেয়া মোটেও সহজ হবে না। সেটা খুবই কঠিন ও চ্যালেঞ্জিং হবে। কাজেই আমার কথা হলো যে বা যিনি ওয়ানডে অধিনায়ক হোক না কেন- তার কাজটা হবে খুব চ্যালেঞ্জিং বলেন মাহমুদউল্লাহ।
তিনি বলে তারপরও আমি বলতে চাই, মাশরাফি ভাই একটা বড় উদহারণ। তিনি একটা মানদণ্ড ঠিক করে গেছেন। যেই অধিনায়ক হোক না কেন, নিশ্চয়ই তিনি সে পথে হাঁটার চেষ্টা করবেন। একেকজনের চিন্তা একেকরকম। সবাই একভাবে ভাবেন না, পরিকল্পনাও করেন যে যার মত।